পরিবারের জন্যই জাহিদের পরিশ্রম

জাহিদ হাসানছবি: সংগৃহীত

আশিকুজ্জামান

জাহিদ হাসানরা ছয় ভাইবোন। পরিবারে নানা সংকট। তবু জাহিদের কৃষক বাবা ও বড় ভাই মিলে সব সময় চেয়েছেন, ছেলেমেয়েদের পড়ালেখায় যেন কোথাও ঘাটতি না থাকে। অভাব তাঁরা বুঝতে দেননি। তাই বাবা, বড় ভাই ও পরিবারের কথা ভেবেই জাহিদেরও মাথায় ছিল, তাঁদের কষ্ট বৃথা যেতে দেওয়া যাবে না। সব সময় পড়ালেখাকে গুরুত্ব দিয়েছেন জাহিদ।

ময়মনসিংহের সরকারি আনন্দমোহন কলেজের বিজ্ঞান শাখায় পড়েছেন। প্রাথমিকভাবে মেডিকেল ভর্তির প্রস্তুতি নিয়েছিলেন। অল্প নম্বরের জন্য ভর্তির সুযোগ হয়নি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও সমন্বিত বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় টিকেছেন। তবে সবচেয়ে ভালো ফল এসেছে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গুচ্ছভর্তি পরীক্ষায়। দ্বিতীয় হয়েছেন তিনি। তাই কৃষি নিয়েই পড়াশোনা করতে চান জাহিদ। ভর্তি হতে চান বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে।

জাহিদ বলছিলেন, ‘আমাদের তো টানাটানির সংসার। কাজ খুঁজতে বড় ভাইকে চট্টগ্রামে চলে যেতে হয়েছে। এসএসসির পর মামি তাঁদের বাড়িতে থেকে কলেজে ভর্তি হওয়ার সুযোগ করে দিয়েছিলেন। পরের পথচলায়ও মামির অনেক অবদান।’

পরিবারের জন্যই জাহিদের পরিশ্রম

জাহিদ হাসানছবি: সংগৃহীত

আশিকুজ্জামান

জাহিদ হাসানরা ছয় ভাইবোন। পরিবারে নানা সংকট। তবু জাহিদের কৃষক বাবা ও বড় ভাই মিলে সব সময় চেয়েছেন, ছেলেমেয়েদের পড়ালেখায় যেন কোথাও ঘাটতি না থাকে। অভাব তাঁরা বুঝতে দেননি। তাই বাবা, বড় ভাই ও পরিবারের কথা ভেবেই জাহিদেরও মাথায় ছিল, তাঁদের কষ্ট বৃথা যেতে দেওয়া যাবে না। সব সময় পড়ালেখাকে গুরুত্ব দিয়েছেন জাহিদ।

ময়মনসিংহের সরকারি আনন্দমোহন কলেজের বিজ্ঞান শাখায় পড়েছেন। প্রাথমিকভাবে মেডিকেল ভর্তির প্রস্তুতি নিয়েছিলেন। অল্প নম্বরের জন্য ভর্তির সুযোগ হয়নি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও সমন্বিত বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় টিকেছেন। তবে সবচেয়ে ভালো ফল এসেছে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গুচ্ছভর্তি পরীক্ষায়। দ্বিতীয় হয়েছেন তিনি। তাই কৃষি নিয়েই পড়াশোনা করতে চান জাহিদ। ভর্তি হতে চান বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে।

জাহিদ বলছিলেন, ‘আমাদের তো টানাটানির সংসার। কাজ খুঁজতে বড় ভাইকে চট্টগ্রামে চলে যেতে হয়েছে। এসএসসির পর মামি তাঁদের বাড়িতে থেকে কলেজে ভর্তি হওয়ার সুযোগ করে দিয়েছিলেন। পরের পথচলায়ও মামির অনেক অবদান।’